শ্রীমঙ্গলের রিসোর্ট ও হোটেলঃ ভাড়া, বুকিং ও ফোন নাম্বার

Moulovibazar resort
শেয়ার করুন সবার সাথে

এক নজরে আর্টিকেলের শিরোনামসমূহ

শ্রীমঙ্গলের রিসোর্ট ও হোটেলের তালিকা

বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি বলা হয় সিলেটকে। এই সিলেট বিভাগেই রয়েছে আরেক প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের আধার মৌলভীবাজার জেলা। ২৭৯৯ বর্গ কিলোমিটারের এই জেলা তথা সিলেট অঞ্চল প্রাচীনকাল থেকেই পবিত্র ভূমি হিসেবে খ্যাত। এমনকি, রামায়ণ ও মহাভারত এর মতো মহাকাব্যেও এই স্থানের উল্লেখ রয়েছে। কথিত আছে যে, ১৮১০ খ্রিষ্টাব্দে মৌলভী সৈয়দ কুদরত উল্লাহ মনু নদীর তীরে একটি বাজার প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। সেই বাজারই কালক্রমে প্রসিদ্ধি লাভ করে দক্ষিণ সিলেট মহকুমা থেকে মৌলভীবাজার জেলায় উন্নীত হয়।
মৌলভীবাজার জেলা ঐতিহ্যমণ্ডিত একটি জেলা। দেশের কৃষ্টি, সভ্যতা ও সংস্কৃতি এবং পর্যটন শিল্পে এই জেলার গুরত্বপূর্ণ অপরিসীম। পাহাড়, টিলা, সংরক্ষিত বনাঞ্চল, হাওড়-বাওড়, চা বাগান এবং জীববৈচিত্র্যে পূর্ণ এই জেলার কদর পর্যটকদের কাছে ব্যাপক। হামহাম জলপ্রপাত, মাধবকুন্ড জলপ্রপাত, হাকালুকি হাওড়, বাইক্কা বিল, মাধবপুর লেক, বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমানের সমাধি, মনু ব্যারেজ, লাউয়াছড়া রিজার্ভ ফরেস্ট, হযরত সৈয়দ শাহ মোস্তফা (রঃ) এর মাজার শরীফ, গয়ঘর ঐতিহাসিক খোজারমসজিদ, আদিবাসী পল্লী এবং পৃথিমনাশা নবাব বাড়িসহ আরো প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে পূর্ণ এই মৌলভীবাজার জেলা।
তাই পর্যটকদের চাহিদার কথা মাথা রেখে এখানে গড়ে উঠেছে বেশ কিছু আবাসিক হোটেল ও রিসোর্ট। আজকের আয়োজনে থাকছে মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলে হোটেল ও রিসোর্টের খবরাখবর। তবে তার আগে যোগাযোগ ব্যবস্থা নিয়ে খানিকটা ধারণা নেয়া যাক। ঢাকাসহ দেশের যে কোনো স্থান থেকেই মৌলভীবাজার জেলায় আসার পরিবহণ ব্যবস্থা রয়েছে। ঢাকা থেকে হানিফ, শ্যামলী, সিলেট এক্সপ্রেসসহ আরো অনেক বাসই এই জেলায় সরাসরি যায়। তাছাড়া, ট্রেন ও বিমানে যাবার সুবিধাও রয়েছে।



তবে ট্রেনে গেলে শ্রীমঙ্গল নামতে হবে এবং বিমানে গেলে ওসমানী বিমানবন্দরে। নন এসি বাসের ভাড়া পড়বে সর্বনিম্ন ৩৫০ থেকে সর্বোচ্চ ৪৫০/৫০০ টাকা। এবং এসি বাসের ভাড়া পড়বে ৭৫০ থেকে ৯০০ টাকার মধ্যে। আর ট্রেন ভাড়া সর্বনিম্ন ১৩৫/- থেকে সর্বোচ্চ ১১০০/- টাকার মধ্যে ক্লাসভেদে। আর বিমানে ওয়ানওয়ে ভাড়া পড়াবে নূন্যত্ব আড়াই হাজার টাকা।

গ্র্যান্ড সুলতান টি রিসোর্ট অ্যান্ড গলফ,
শ্রীমঙ্গল, 

পুরো সিলেট বিভাগের প্রথম ফাইভ স্টার বা পাঁচ তারকা হোটেল হচ্ছে এই গ্র্যান্ড সুলতান টি রিসোর্ট অ্যান্ড গলফ। বিলাসবহুল আর আরামদায়ক মৌলভীবাজার বা শ্রীমঙ্গল ট্যুরের জন্য গ্র্যান্ড সুলতান টি রিসোর্ট অ্যান্ড গলফের কোন তুলনা নেই।
৮টি ক্যাটাগরিতে বিভক্ত এই হোটেলে সর্বমোট ১৩৫টি গেস্টরুম রয়েছে। যার মধ্যে ডিলাক্স (কিং, কুইন ও ট্রিপল), এক্সিকিউটিভ (কিং ও কুইন), রয়্যাল স্যুইট (ডিলাক্স ও সুপেরিয়র) এবং প্রেসিডেনশিয়াল স্যুইট (রাজ প্রাসাদ) রয়েছে। সর্বনিম্ন রুম ভাড়া ২৪,০৩৫/- টাকা এবং সর্বোচ্চ ৭৭,৭৯৭/- টাকা অবধি বিলাসবহুল রুমও রয়েছে এখানে।
গ্র্যান্ড সুলতানে ফোয়ারা ডাইন, অরণ্য বিলাস, শাহী ডাইন, ক্যাফে মঙ্গল এবং পুল ডেক ক্যাফে রয়েছে বিশ্বমানের খাবার দাবার নিয়ে। ব্যবসায়িক ও বিয়ে বা পার্টি সংক্রান্ত কাজের জন্য রয়েছে রশ্মি মহল, নওমি মঞ্জিল, দেওয়াই-ই-খাস হলরুম ও ব্যানকুইট রয়েছে। এছাড়া, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সুইমিং পুল রয়েছে এতে। পাশাপাশি জাকুজি, স্পা এবং জিমনেসিয়ামের সুযোগ সুবিধা। বিনোদনের ব্যবস্থায় আছে আউডোর ও ইনডোর স্পোর্টস জোন, কিড প্লে জোন, লাইব্রেরী এবং মুভি থিয়েটার। হেলিপ্যাডসহ পাঁচ তারকা হোটেলের সকল সুবিধাই পাওয়া যাবে এখানে। তবে, সকল কিছুই ১০% সার্ভিস চার্জ এবং ১৫% ভ্যাট (মূল্য সংযোজন কর) সাপেক্ষে।

যোগাযোগ:

গ্র্যান্ড সুলতান টি রিসোর্ট অ্যান্ড গলফ
শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার – ৩২১০।
মোবাইল: +৮৮ ০১৭৩০ ৭৯৩৫০১ – ০৪
ওয়েবসাইট: www.grandsultanresort.com
ঢাকা অফিস
ফ্ল্যাট – ডি২, রোড নাম্বার – ০৮, ব্লক – সি, বাসা – ১০৮,
বনানী, ঢাকা – ১২১৩।
টেলিফোন: +৮৮ ০২ ৯৮৫২৫৮৫

দুসাই রিসোর্ট অ্যান্ড স্পা
গিয়াসনগর, মৌলভীবাজার

দুসাই রিসোর্ট হচ্ছে বাংলাদেশের প্রথম ফাইভ স্টার বা পাঁচ তারকা মানের বুটিক ভিলা। পাহাড়ের উপর সবুজ বনানীর মধ্যে স্থাপিত এই রিসোর্টটি ১০০০ ফুট সমান লম্বা একটি লেক দ্বারা পরিবেষ্টিত। প্রাকৃতিক পরিবেশের মধ্যে অবকাশ যাপনের জন্য দুসাই রিসোর্ট একদম পারফেক্ট।
৩০টি হোটেল ও ২৪ টি ভিলা দুইটি আলাদা ক্যাটাগরিতে বিভক্ত মোট ৫৪টি গেস্টরুম রয়েছে এই রিসোর্টে। হোটেল ক্যাটাগরিতে সুপেরিয়র কিং এবং প্রিমিয়াম কিং নামে দুটি আলাদা রুম রয়েছে।



১৮টি সুপেরিয়র কিং রুমের ভাড়া সর্বনিম্ন ১২,০০০/- টাকা। এবং ১২টি প্রিমিয়াম কিং ক্যাটাগরি রুমের ভাড়া সর্বনিম্ন ১৪,০০০/- টাকা থেকে শুরু।

৭টি আলাদা ক্যাটাগরির গেস্টরুম রয়েছে ভিলাতে; যা ভিলা ডিলাক্স কুইন, ভিলা ডিলাক্স কিং, ভিলা স্যুইট সি, বি এবং এ; হানিমুন ভিলা এবং প্রেসিডেন্সিয়াল ভিলা। যেখানে সর্বনিম্ন ভিলা ডিলাক্স কুইনের ভাড়া ১৭,০০০/- টাকা হতে শুরু এবং সর্বোচ্চ প্রেসিডেন্সিয়াল ভিলার ভাড়া ৮০,০০০/- টাকা।
দুসাই রিসোর্টে বানানা লিফ রেস্টুরেন্ট, টি ভ্যালী রেস্টুরেন্ট, ফরেস্ট পাব, দ্য পুল ক্যাফে এবং দ্য গার্ডেন লাউঞ্জ নামে বিশ্বমানের রেস্তোরাঁর দেখা মিলবে। স্পা, জাকুজি, জিম, সিনেপ্লেক্স এবং অ্যাম্ফিথিয়েটার রয়েছে এখানে। ৭০ ফুট লম্বা সুইমিং পুলও রয়েছে এখানে। খেলাধুলা ও বিনোদনের সব ধরণের ব্যবস্থাই রয়েছে দুসাই রিসোর্টে। ইনডোর আর আউটডোর দুই ধরণের খেলারই সুব্যবস্থা রয়েছে এখানে।
এছাড়া, কায়াকিংয়ের মতো রিলাক্সেশনের ব্যবস্থাও রয়েছে। তাছাড়া, কনভেনশন সেন্টার, কনফারেন্স সেন্টার, ডাইনিং হল, লাউঞ্জ হল এবং বড় ও ছোট মিটিং রুম রয়েছে দুসাই রিসোর্টে। তবে, সকল কিছুই ১০% সার্ভিস চার্জ এবং ১৫% ভ্যাট (মূল্য সংযোজন কর) সাপেক্ষে।

যোগাযোগ:

দুসাই রিসোর্ট অ্যান্ড স্পা
শ্রীমঙ্গল রোড, নিতেশ্বর
গিয়াসনগর, মৌলভীবাজার
হটলাইন: +৮৮০ ১৬১৭০০৫৫১১
ইমেইল: rsvn@dusairesorts.com
ওয়েবসাইট: www.dusairesorts.com
ঢাকা অফিস
দশম তলা, ইরেক্টোরস হাউজ
১৮ কামাল আতার্তুক অ্যাভিনিউ
বনানী সি/এ, ঢাকা।
ফোন: +৮৮০ ১৬১৭ ০০৫৫০৩-০৪
ইমেইল: inquiry@dusairesorts.com

রাঙাউটি রিসোর্ট
কুলাউড়া রোড, মৌলভীবাজার

মনু নদী পাড়ঘেষা এক মনোমুগ্ধকর রিসোর্ট হচ্ছে রাঙাউটি রিসোর্ট। সবুজে মোড়া এই রিসোর্টের মনমাতানো পরিবেশ মনকে করে প্রশান্ত। মনু ব্যারেজের কাছাকাছি অবস্থিত এই রিসোর্টের চারপাশ জুড়ে একটি ইউ আকৃতির প্রাকৃতিক হ্রদ রয়েছে। ৪৫ একর জায়গাজুড়ে বিস্তৃত এই রিসোর্টের মূল আকর্ষণ হ্রদের উপর ভাসমান কটেজ।

রিসোর্টটিতে ৬টি কটেজ এবং একটি দোতলা দালান রয়েছে। যেগুলোর ভাড়া যথাক্রমে – সর্বনিম্ন ডিলাক্স টুইন ৫,৯০০/- টাকা, সুপার ডিলাক্স ৭,৭০০/- টাকা, স্পেশাল সুপার ডিলাক্স ৮,৬০০/- টাকা, ফ্যামিলি ডিলাক্স ৮,৬৭৫/- টাকা, এবং সর্বোচ্চ স্যুইট জল জোছনা ১১,৩০০/- টাকা।



রিসোর্টের অতিথিদের জন্য এখানে রয়েছে একটি নিজস্ব রেস্তোরাঁ। হ্রদের উপর ভেসে বেড়ানোর জন্য রয়েছে রিসোর্টের নিজস্ব নৌকা। চাইলেই ঘুরে মন জুড়িয়ে নিতে পারবেন। তাছাড়া, এই হ্রদ প্রাকৃতিক সুইমিং পুলের কাজও করে। জায়গায় জায়গায় রয়েছে দোলনা আর দৃষ্টিনন্দন সব চেয়ার যেন জিরিয়ে নেয়াটাও খানিকটা প্রশান্তিময় হয়। রয়েছে মাছ ধরার সুব্যবস্থা। স্পা আর সাউনার ব্যবস্থাও থাকছে। এছাড়া, কনফারেন্স, কালচারাল প্রোগ্রাম এবং ট্রেনিং সেশনের জন্য রয়েছে উন্মুক্ত স্পেশ।

যোগাযোগ:

রাঙাউটি রিসোর্ট
তালতলা বাজার, কুলাউড়া রোড
মৌলভীবাজার, সিলেট
ফোন: +৮৮০ ১৭৮০২০৩৩৫০
+৮৮০ ১৭১২১১১৩৮৮
+৮৮০ ১৭৮০২০৩৩৫০
ইমেইল: onlinebooking@rangautiresort.com
ওয়েবসাইট: www.rangautiresort.com

নভোম ইকো রিসোর্ট
রাধানগর, মৌলভীবাজার

লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান থেকে মাত্র ৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত নভোম ইকো রিসোর্টটি ৩ একর জায়গা জুড়ে বিস্তৃত। মূলত রিসোর্টটিতে গড়ে উঠেছে দুটি টিলাকে কেন্দ্র করে। দুটি টিলার সংযোগ হয়েছে কাঠের একটি ব্রীজের মাধ্যমে, যা বর্তমান এই রিসোর্টের ট্রেডমার্ক হয়ে গেছে। মূলত কাঠের দুটি কটেজ এই রিসোর্টের মূল আকর্ষণ পর্যটকদের জন্য। তাছাড়া, সুলভ মূল্যে প্রকৃতির এত কাছাকাছি থাকতে পারাটাও একটা বড় বিষয়।
৬টি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে এই রিসোর্টের গেস্টরুমগুলোকে। যার মধ্যে রয়েছে মাড হাউজ, উড কটেজ, ডুপ্লেক্স ফ্যামিলি ভিলা, ফ্যামিলি ডিলাক্স, কাপল ডিলাক্স, কাপল ভিলা ইত্যাদি। এখানকার রুমগুলোর সর্বনিম্ন ভাড়া পাওয়া যাবে ৭,০০০/- টাকায় যা টুইন ডিলাক্স, কাপল ভিলা, কাপল ডিলাক্স গেস্টরুমগুলোর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। আর সর্বোচ্চ প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুইট রয়েছে ২৫,০০০/- টাকায়।
তবে নভেম ইকো কটেজের মূল আকর্ষণ হচ্ছে মাড হাউজ এবং উড কটেজ। কাদামাটিতে তৈরি মাড হাউজ মূলত গ্রাম্য পরিবেশে থাকার রোমাঞ্চকর এক অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্যে বানানো। তবে আধুনিক সকল সুযোগ-সুবিধা থাকছে এতে। মাড হাউজে থাকতে হলে গুনতে হবে ৭,০০০/- টাকা। কাঠ আর বাঁশের তৈরি এই উড কটেজ নভেমের সবচেয়ে জনপ্রিয় কটেজ। এখানে থাকার জন্য গুনতে হবে ১৬,০০০/- টাকা।

অতিথিদের কথা চিন্তা করেই নভেম ইকো কটেজে রয়েছে ভালো মানের একটি রেস্তোরাঁ। পাশাপাশি রয়েছে সুইমিংপুল, রুম সার্ভিস, লন্ড্রি সার্ভিস, কার পার্কিং, পরিবহন সুবিধা, ইনডোর গেমস, সাইকেলিং এবং ওয়াই-ফাইয়ের সুবিধা। কনফারেন্স রুম রয়েছে রিসোর্টটিতে।

যোগাযোগ:

নভেম ইকো রিসোর্ট
বিশামনি, রাধানগর,
শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার
ফোন: +৮৮০ ১৭০৯৮৮২০০০-১
ইমেইল: sales@novemecoresort.com
ওয়েবসাইট: www.novemecoresort.com

শ্রীমঙ্গল টি রিসোর্ট
শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার

বেড়াতে গিয়ে বাংলোতে থাকতে চাইলে শ্রীমঙ্গল টি রিসোর্টের বিকল্প নেই। সরকারী এই বাংলোতে ২ রুম, ৩রুম এবং ৩রুমের একটি ভিআইপি বাংলো আছে। যেগুলোর ভাড়া যথাক্রমে ৯,৬৬০/-, ১৪,৪৯০/- এবং ১৮,১১৩/- টাকা। ভাড়ার মধ্যেই ৫% ভ্যাট ও ১৫% সার্ভিস চার্জ অন্তর্ভূক্ত, সাথে থাকছে কমপ্লিমেন্টারি ব্রেকফাস্ট।
মোবাইল – +৮৮ ০১৭১২ ০৭১৫০২, ইমেইল – tearesort@yahoo.com এবং ওয়েবসাইট – www.tearesort.gov.bd

লেমন গার্ডেন রিসোর্ট
লাউয়াছড়া রোড, শ্রীমঙ্গল

ছিমছাম পরিবেশের জন্য এবং মধুচন্দ্রিমার জন্য লেমন গার্ডেন জনপ্রিয়। ইকোনোমি, লাক্সারি, প্রেসিডেনশিয়াল ও ভিআইপি চারটি স্যুইট রয়েছে এই রিসোর্টে।



যেগুলোর ভাড়া পড়বে সর্বনিম্ন ৩৬০০/- টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৭২০০/- টাকা অবধি। আর দর্শনার্থীরাও চাইলে এই রিসোর্ট ঘুরে দেখতে পারবে। তবে সেজন্য গুনতে হবে ৩০০/- টাকা। মোবাইল – +৮৮ ০১৭৭৯ ৬২৬৩৩০ এবং ওয়েবসাইট – www.lemongardenresort.com

টি হেভেন রিসোর্ট
হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল

এই রিসোর্টে তিন ক্যাটাগরির গেস্টহাউজ রয়েছে। অ্যাকোমোডেশন যা মূলত একটি চারতলা ভবন। ডুপ্লেক্স যা মূলত দ্বোতলা ভবন এবং একটি বাংলো। অ্যাকোমোডেশনে ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ২,০০০/- টাকা এবং সর্বোচ্চ ৫,৫০০/- টাকা গুনতে হবে। ডুপ্লেক্সের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ২৬২৫/- টাকা এবং সর্বোচ্চ ৪,৭২৫/- টাকা। এবং বাংলোর ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৪,২০০/- টাকা এবং সর্বোচ্চ ৬,৩০০/- টাকা। নিজস্ব রেস্তোরাঁয় রয়েছে খাবারের সুব্যবস্থা।
মোবাইল – +৮৮ ০১৭০৮ ০৩৩৫৪৪-৫, ইমেইল – info@teaheavenresort.com এবং ওয়েবসাইট – www.teaheavenresort.com

নিসর্গ ইকো রিসোর্ট
রাধানগর, শ্রীমঙ্গল

ইকো ফ্রেন্ডলি এই রিসোর্টের সব গেস্টরুমই মূলত কটেজ। তবে ভিন্নতা আছে নির্মাণে। মাটি আর বাঁশের ঘরের পাশাপাশি চালাঘর কিংবা দালানও রয়েছে। ক্যাটাগরি ভেদে এসব কটেজের সর্বনিম্ন ভাড়া ২,৩০০/- টাকা এবং সর্বোচ্চ ভাড়া ৫,০০০/- টাকা। রেস্তোরাঁর পাশাপাশি রুম সার্ভিসও রয়েছে।
মোবাইল – +৮৮ ০১৭৬৬ ৫৫৭৭৮০, ইমেইল – nishorgoresort@gmail.com এবং ওয়েবসাইট – www.nishorgocottage.com

গ্র্যান্ড সেলিম রিসোর্ট
রামনগর মনিপুরীপাড়া, শ্রীমঙ্গল

মনিপুরীপাড়ায় অবস্থিত এই রিসোর্টটি শ্রীমঙ্গল শহর থেকে মাত্র ১ কিলোমিটার দূরে। চার ক্যাটাগরির রুমের মধ্যে সর্বনিম্ন রুম ভাড়া ২,৪১৫/- টাকা এবং সর্বোচ্চ ৪,১৪০/- টাকা। রেস্তোরাঁয় রয়েছে খাবারের সুব্যবস্থা।
মোবাইল – +৮৮ ০১৭০৯ ৮৮৩৩৩৩, ইমেইল – reservation@grandselimresort.com এবং ওয়েবসাইট – www.grandselimresort.com
শান্তিবাড়ি ইকো রিসোর্ট
রাধানগর, শ্রীমঙ্গল



একপাশে আনারস বাগান আর অন্যপাশে লেবু বাগানের মধ্যখানে পাঁচ একর জায়গা নিয়ে এই রিসোর্টটি অবস্থিত। একটি দোতলা কাঠের বাড়ি ও দুইটা বাঁশের তৈরি কটেজ রয়েছে। ভাড়া যথাক্রমে ৩,০০০/- এবং ২,০০০/- টাকা। মোবাইল – +৮৮ ০১৭১৩ ০০৫৮২১ এবং ওয়েবসাইট – www.shanti-bari-eco-resort.business.site

সুইস ভ্যালি রিসোর্ট
শমসের নগর, মৌলভীবাজার

সিঙ্গেল এবং ডাবল মিলিয়ে বেশ কয়েকটা কটেজ রয়েছে এই রিসোর্টে। যেখানে থাকার জন্য সর্বনিম্ন ২,৫০০/- টাকা হতে শুরু করে সর্বোচ্চ ১৫,০০০/- টাকা গুনতে হবে। অবশ্য, এর সঙ্গে ১৫% ভ্যাট ও ৭.৫% সার্ভিস চার্জও যুক্ত হবে। থাকছে বারবিকিউসহ খাবারের সুব্যবস্থা। সুইমিংপুল, রুম সার্ভিস এবং এমনকি বোনফায়ার বা ক্যাম্পফায়ারের ব্যবস্থাও আছে। মোবাইল – +৮৮০ ১৭৮৬ ৪৯৩ ৭০০ এবং ওয়েবসাইট – www.swissvalleysn.com

হার্মিটেজ গেস্ট হাউজ
রাধানগর, শ্রীমঙ্গল

ব্যক্তি মালিকানায় প্রতিষ্ঠিত এই গেস্ট হাউজের রুমের ভাড়া পড়বে সর্বনিম্ন ২,০০০/- টাকা এবং সর্বোচ্চ ৫,০০০/- টাকা। স্টেশন থেকে গাড়ির সুবিধা রয়েছে। মোবাইল – +৮৮০ ১৭১১ ৫৯৫ ২৬৫ এবং ওয়েবসাইট – hermitageguesthouse.com

টি টাউন রেস্ট হাউজ
হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল

সিঙ্গেল, ডাবল, ডিলাক্স, কুইন এবং ফ্যামিলি ক্যাটাগরিতে থাকা কামরাগুলোর ভাড়া পড়বে সর্বনিম্ন ১,০০০/- টাকা হতে সর্বোচ্চ ৯,০০০/- টাকা পর্যন্ত। খাবারসহ রেস্ট হাউজের অন্যান্য সকল সুযোগ সুবিধাই বিদ্যমান। মোবাইল – +৮৮০ ১৭১৮ ৩১৬ ২০২ এবং ফেইসবুক পেইজ – www.facebook.com/teatownresthouse

হোটেল স্কাইপার্ক
চৌমুহনা, শ্রীমঙ্গল

এসি-ননসহ সিঙ্গেল, ডাবল, ডিলাক্স এবং ফ্যামিলি ক্যাটাগরিতে বিভক্ত কামরাগুলোর ভাড়া পড়বে সর্বনিম্ন ১,০০০/- টাকা হতে সর্বোচ্চ ৫,০০০/- টাকা পর্যন্ত। মোবাইল – +৮৮০ ১৭১১ ৯৬৬ ৯০৩, ইমেইল – support@skyparkbd.com এবং ওয়েবসাইট – skyparkbd.com

হোটেল আল রহমান
হবিগঞ্জ রোড, শ্রীমঙ্গল

একদমই সুলভ মুল্যে যারা থাকতে চান তাদের জন্য রয়েছে হোটেল আল রহমান। কেবল থাকা এবং বললে খাবারের সুব্যবস্থা করা হয়ে থাকে। এখানে সর্বনিম্ন ৮০০/- টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২,০০০/- টাকায় রুম ভাড়া পাওয়া যাবে। মোবাইল – +৮৮০ ১৭১৭ ০৬৩ ৪৩৭ এবং ওয়েবসাইট – hotel-26782.business.site/

হোটেল ইউনাইটেড রেসিডেন্সিয়াল
চৌমুহনা, শ্রীমঙ্গল

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশেই অবস্থিত এই আবাসিক হোটেলও সুলভ মূল্যের। এখানে ৫০০/- টাকা হতে ২,০০০/- টাকার মধ্যে রুম ভাড়া পাওয়া যাবে। মোবাইল: ০১৭১১ ০৭৪ ৭১৯ এবং ০১৭২৩ ০৩৩ ৬৯৫।
হোটেল মহসিন প্লাজা
কলেজ রোড, মৌলভীবাজার

সর্বনিম্ন ১,০০০/- টাকা থেকে ৩,০০০/- টাকা অবধি রাত্রিযাপনের ব্যবস্থা রয়েছে হোটেল মহসিন প্লাজাতে। মোবাইল: ০১৭১১ ৩৯০ ০৩৯

পরামর্শ ও সতকর্তাসমূহ:

উপরোক্ত সকল কিছুই বিশেষ করে রুম ভাড়া ও যোগাযোগ, হোটেলের নিজস্ব ওয়েবসাইট হতে সংগ্রহীত আর বাদবাকি তথ্য ইন্টারনেট হতে। তাই বুকিং করার আগে অন্তত একবার হোটেলের ওয়েবসাইট থেকে ঘুরে আসাটা বুদ্ধিমানের কাজ হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন। ঘুরতে গিয়ে যত্রতত্র ময়লা-আবর্জনা ফেলবেন না।

তথ্যসূত্র:

০১. মৌলভীবাজার জেলা।
০২. শ্রীমঙ্গলের সেরা রিসোর্ট।
০৩. মৌলভীবাজারের হোটেল/রিসোর্ট।
০৪. শ্রীমঙ্গলের কয়েকটি মুগ্ধকর রিসোর্ট।

বিঃদ্রঃ হোটেল ও রিসোর্টের ফোন নাম্বার ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করা এবং অনেক ক্ষেত্রে নাম্বারগুলোর সঠিকতা যাচাই করা আমাদের পক্ষে সম্ভবও হয়ে ওঠে না। তাই কেউ যদি কোন ফোন নাম্বারে যোগাযোগ করতে ব্যর্থ হোন, তাহলে কমেন্ট করে আমাদেরকে বিষয়টি অবহিত করুন। এতে করে আমরা নাম্বারটি সংশোধন করতে পারব।     


শেয়ার করুন সবার সাথে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!